1. admin@dailynaogaonnews.com : admin :
শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৫৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ধামইরহাটে চেয়ারম্যান ৬, ভাইস চেয়ারম্যান ২ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ২ জনের মনোনয়ন পত্র জমা নওগাঁয় প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী-২০২৪ এ দাবী’র প্রথম স্হান অর্জন নওগাঁয় সড়ক দূর্ঘটনায় এক দম্পতি নিহত, আহত দুইজন আদমদীঘিতে ডাকাতি মামলার আরও তিনজন গ্রেফতার নওগাঁর পত্নীতলায় বাংলা নববর্ষ উদযাপিত ধামইরহাটে বর্ণাঢ্য আয়োজনে নববর্ষ উদযাপন নওগাঁয় ঠিকাদারকে কুপিয়ে জখমের ঘটনার প্রধান আসামি শান্ত গ্রেপ্তার বদলগাছীতে উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত বাংলা নববর্ষের মঙ্গল শোভাযাত্রা, পান্তা ভোজন ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত চকময়রাম সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয় ক্রিকেট টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন এসএসসি -২০১৬ ব্যাচ বগুড়ায় আলোকবর্তিকা ফাউন্ডেশন কর্তৃক ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ

নওগাঁ শহরের সরু রাস্তায় ইজিবাইকের দাপটে তীব্র যানজট, ভোগান্তিতে শহরবাসী

  • প্রকাশিত : শনিবার, ২৫ মার্চ, ২০২৩
  • ৯০ বার পঠিত

আসাদুজ্জামান : উত্তরাঞ্চলের সীমান্তবর্তী জেলা প্রথম শ্রেণীর পৌরষভা নওগাঁ। গত দশ বছরে এই শহরে মানুষ ও যানবাহনের সংখ্যা বেড়েছে কয়েকগুন। সময়ের সাথে সাথে সব কিছু পরিবর্তন হলেও পরিবর্তন হয়নি শহরের রাস্তা ঘাটের। রয়ে গেছে আগের মতোই শরু ও ভাঙ্গা রাস্তা। একদিকে যেমন রাস্তার এমন বেহাল অবস্থা অপরদিকে আবার প্রশাসনিক জোরালো কোন পদক্ষেপ না থাকায় রাস্তায় প্রতিদিন বেড়েই চলেছে রেজিষ্টেশন বিহীন ব্যটারি চালিত ইজিবাইক ও অটোরিক্সা। পৌর শহরের ধারণ ক্ষমতার কয়েকগুণ বেশি ইজিবাইক চলাচল করায় ইজিবাইকের নগরে পরিণত হয়েছে এই শহর। যার ফলে তীব্র যানজটের শহরে পরিণত
হয়েছে রাস্তাগুলো। ছোট একটি শহরে ইজিবাইক ও অটোরিক্সার সংখ্যা এতটাই বেশি যে পথচারীদের
চলাচল দায় হয়ে পড়েছে । ঘণ্টার পর ঘণ্টা তীব্র যানজটে কবলে প্রতিনিয়ত অসহনীয় দুর্ভোগে পড়ছে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী, চাকরিজীবী, ব্যবসায়ী, জরুরী রোগী বহনে এম্বুলেন্স সাধারণ মানুষ। সড়কের মোড়ে মোড়ে শৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্বে যে সংস্থার উপর সে ট্রাফিক পুলিশ নেই বললেই চলে। শহরের এই যানজট এড়াতে পৌরসভা, পুলিশ ও বণিক সমিতির নানা মুখি উদ্যোগ গ্রহন করতে হবে বলে জানিয়েছেন সচেতন মহল।
নওগাঁ পৌরসভার তথ্য মতে, এই শহরের বাসিন্দা সাড়ে ৩ লাখের বেশি। নওগাঁ একটি জেলা শহর হওয়ায় ১১টি উপজেলা সহ বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রতিদিন হাজারো মানুষ নানান কাজের জন্য ছুটে আসে এই শহরে। ২০১১ সাল থেকে ইজিবাইক ও অটো রিক্সার নিবন্ধন দেয়া শুরু করে পৌর কর্তৃপক্ষ। তার পর থেকে এর সংখ্যা দ্রত গতিতে বাড়তে থাকে। এই মুহূর্তে শহরে ইজিবাইক ও অটো রিক্সার সংখ্যা ১৩ হাজারের বেশি। যা গত এক বছরে এ সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে দ্বিগুণ।
শহরের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, শহরের মেইন রোড কাঁঠালতলী থেকে শুরু করে ডাকা বাসস্ট্যান্ড,
তাজের মোড়, ব্রীজের বাটার মোড়,পুরাতন বাসস্ট্যান্ড, সরিষাহাটির মোড়, দয়ালের মোড় হয়ে বালুডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত প্রায় ৪ কিলোমিটার রাস্তায় প্রতিদিন সকাল ৮ থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত শহরের প্রধান এই কয়েকটি সড়কে সহ শহরের প্রাণ কেন্দ্র গোস্তহাটির মোড়,কাচাড়ি রোড, ও চুরি পট্টি এলাকায় বেশির ভাগ সময় যানজট লেগেই থাকে। কারণ শহরের এই মোড়গুলো প্রশস্ত নয় এবং প্রধান সড়কগুলো একেবারেই সরু। তার উপর আবার বাজারের রাস্তার কিছু কিছু সড়কের দুই পাশ দখল করে বসেছে নানান দোকান যার ফলে যানজট আরো বেড়ে যাচ্ছে। এর সঙ্গে যোগ হয়েছে শহরে ইজিবাইকের কোনো স্ট্যান্ড না থাকা। তাই নিয়ম নীতি না মেনেই সবাই রাস্তার মাঝখানে ও মোড়ে দাঁড়িয়েই যাত্রী উঠানোর কাজ করছে। একটি ইজিবাইকে আটজন যাত্রী বসার জায়গা থাকলেও এক থেকে দুজনের বেশি যাত্রী পাচ্ছেন না কেউই। দেখে মনে হচ্ছে যাত্রীর থেকে ইজিবাইকই বেশি। এই দীর্ঘ যানজটের জন্যে শহরে যানবাহন চলাচলের অব্যবস্থাপনাকেও দায়ী করছেন অনেকে।
নওগাঁ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী রুবাইয়া তাবাস্সুম বলেন, আমি প্রতিদিন বাসা
থেকে গুস্তহাটির মোড় হয়ে পুরাতন বাসস্ট্যান্ড দিয়ে স্কুলে যাই। অর এই সময় রাস্তায় এতোটায় ভিড়
থাকে মাঝে মধ্যেই স্কুলে সঠিক সময়ে পৌছাতে পারি না। আবার স্কুল ছুটির পরেও দেখি একই অবস্থা।
কখনো কখনো আমি রিক্সা থেকে নেমে হেটে গেলেই তাড়াতাড়ি স্কুলে পৌছে যায়।
শহরের চকদেব পাড়ার ইজিবাইক চালক সুমন হোসেন বলেন, নওগাঁ শহরের ইজিবাইকের কোন বৈধ স্ট্যান্ড নেই। তাহলে আমরা কোথায় দাঁড়াবো। আমি ৮ বছর ধরে গাড়ি চালায়। প্রথমে যখন গাড়ি চালানো শুরু করি তখন গাড়ির পরিমাণ কম ছিল। রাস্তাঘাটে যানজট ও ছিলো না। কিন্তু বর্তমানে গাড়ি অনেক বেড়ে গেছে। তাই একবার যানজট শুরু হলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা শেষ হয় না।
শহরের কাপড়পট্টির ইমরান নামের একজন ব্যবসায়ী বলেন, আমার দোকান রাস্তার পাশেই। আর এই রাস্তা অত্যন্ত শরু। আমার দোকানের সামনে সব সময় ইজিবাইক ও অটো রিক্সার ভিড় লেগেই আছে। তাছাড়া ব্যক্তিগত মোটর সাইকেল তো আছেই। আর এই ভিড়ের পরিমাণ এতটাই বেশি যে কোন কাস্টমার আমার দোকানে প্রবেশ করার রাস্তা পায় না। আর কিছু অদক্ষ ও নতুন গাড়ি চালক আছে তারা ট্রাফিক আইন তো মানেই না আবার একে অপরের গাড়ির সাথে ধাক্কা লাগিয়ে তাদের মধ্য হাতাহাতি মারামারি পর্যন্তও শুরু করে দেয়।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে ট্রাফিক ইন্সপেকটর বিকর্ণ কুমার চৌধুরী বলেন ,জনসংখ্যা বৃদ্ধির পাশাপাশি
বৃদ্ধি পেয়েছে যানবাহন। কিন্তু সেই তুলনায় রাস্তার কোন উন্নতি হয়নি। আর এই শুরু রাস্তায় ধারণ
ক্ষমতার কয়েকগুন বেশি গাড়ি চলা চল করে। যার কারণ রাস্তায় যানজটের সৃষ্টি হয়। আর এই যানজট নিরসনের চেষ্টায় ট্রাফিক বিভাগের পক্ষ থেকে আমরা আমাদের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছি।
নওগাঁ পৌরসভার মেয়র নাজমুল হক সনি বলেন, অর্থনীতির প্রাণ কেন্দ্র হচ্ছে শহর। যার কারণে শহরের আশেপাশের কয়েকটি ইউনিয়ন থেকে প্রতিদিন সকালে ইজিবাইক, রিক্সা ও ভ্যান শহরের আসে আবার সন্ধ্যায় ফিরে যায়। পৌর সভার জন্য এসব অবৈধ। শহরের প্রবেশ মুখে যদি এসব যানবাহন ঢুকতে দেয়া না হয় তাহলে যানজট আর হবে না। এছাড়াও শহরকে যানজট মুক্ত রাখতে নতুন লাইসেন্স প্রদান বন্ধ করা হয়েছে।
এ বিষয়ে পুলিশ সুপার রাশিদুল হক বলেন, জেলা প্রশাসনের সাথে সম্মিলিত হয়ে আমরা একটা কমিটি গঠন করেছি। এই শহরের অটোরিক্সার সংখ্যা কতো এবং কিভাবে যানজট নিরসন করা যায় সে বিষয়ে
একটা রিপোর্ট চাওয়া হয়েছে। সে অনুপাতে ট্রাফিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আর এতে করে যানজট
নিরসন হবে বলে আশা করছি।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © 2022 Daily Naogaonnews
Theme Customized By Shakil IT Park