1. admin@dailynaogaonnews.com : admin :
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:৪০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ধামইরহাটে চেয়ারম্যান ৬, ভাইস চেয়ারম্যান ২ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ২ জনের মনোনয়ন পত্র জমা নওগাঁয় প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী-২০২৪ এ দাবী’র প্রথম স্হান অর্জন নওগাঁয় সড়ক দূর্ঘটনায় এক দম্পতি নিহত, আহত দুইজন আদমদীঘিতে ডাকাতি মামলার আরও তিনজন গ্রেফতার নওগাঁর পত্নীতলায় বাংলা নববর্ষ উদযাপিত ধামইরহাটে বর্ণাঢ্য আয়োজনে নববর্ষ উদযাপন নওগাঁয় ঠিকাদারকে কুপিয়ে জখমের ঘটনার প্রধান আসামি শান্ত গ্রেপ্তার বদলগাছীতে উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত বাংলা নববর্ষের মঙ্গল শোভাযাত্রা, পান্তা ভোজন ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত চকময়রাম সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয় ক্রিকেট টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন এসএসসি -২০১৬ ব্যাচ বগুড়ায় আলোকবর্তিকা ফাউন্ডেশন কর্তৃক ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ

সাপাহারে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে খড়ের গাদায় আগুন লাগিয়ে ক্ষতিসাধন

  • প্রকাশিত : রবিবার, ১৪ জানুয়ারি, ২০২৪
  • ৩৬ বার পঠিত

মনিরুল ইসলাম,সাপাহার প্রতিনিধি : নওগাঁর সাপাহারে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে খড়ের গাদায় আগুন লাগিয়ে লাখ টাকার ক্ষতি সাধন করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার তিলনা ইউনিয়নের চন্দুরা গ্রামে। বিষয়টি নিয়ে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী আব্দুল মতিন। আব্দুল মতিন চন্দুরা গ্রামের মৃত সহিরউদ্দীনের ছেলে বলে জানা গেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, আব্দুল মতিনের প্রতিবেশীদের সাথে বেশ কিছুদিন যাবৎ বসতবাড়ীর জায়গা নিয়ে বিরোধ চলছিলো। এই বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষরা নানাবিধ হুমকি ধামকা প্রদান করছিলো আব্দুল মতিনকে। এরই ধারাবাহিকতায় ১৩ ফেব্রুয়ারী রাত সাড়ে ১২ টার দিকে পূর্বপরিকল্পিত ভাবে মতিনের খলিয়ানে থাকা তিনটি খড়ের গাদায় আগুন লাগিয়ে দেয় প্রতিপক্ষরা। যাতে করে প্রায় এক লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে অভিযোগে পাওয়া যায়। পরে আগুনের লেলিহান শিখা দেখে স্থানীয়রা টের পেলে ডাক চিৎকার শুরু করে। আব্দুল মতিন জানতে পেরে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। ইতিমধ্যে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার আগেই তিনটি পালা পুড়ে ছাই হয়ে যায়।
এ ঘটনায় আব্দুল মতিন বাদী হয়ে থানায় ৬ জনকে বিবাদী করে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযুক্তরা হলো চন্দুরা গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে নুরনবী,মোস্তাফিজুর রহমান,ফজলুর রহমান একই গ্রামের নুরনবীর স্ত্রী মনোয়ারা, ফজলুর রহমানের স্ত্রী নাসিমা খাতুন, একাব্বর বাদশার ছেলে মো. সেলিম।

এ বিষয়ে বিবাদীদের সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
বিষয়টি নিয়ে সাপাহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পলাশ চন্দ্র দেব’র সাথে কথা হলে তিনি বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। একজন অফিসারকে ইনডোজ করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © 2022 Daily Naogaonnews
Theme Customized By Shakil IT Park